শিরোনাম:

টাইগারদের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে স্বপ্ন পূরণের যাত্রা আজ

বিডিকষ্ট ডেস্ক

 

আজ বুধবার (৯ মার্চ) থেকে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশন শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের। বেলা সাড়ে ৩টায় হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম রাউন্ডে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে টাইগাররা।
ম্যাচ শুরুর আগে ঠিক স্বস্তিতে নেই টিম মাশরাফি। খেলাটা যেহেতু ভারতীয় উপমহাদেশে সঙ্গত কারণেই কিছুটা হলেও হোম কন্ডিশনের সুবিধা পাওয়ার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু হচ্ছে উল্টো। পাহাড় বেষ্টিত শহর ধর্মশালার কন্ডিশন অনেকটা নেদারল্যান্ডসের মতোই বলা চলে। শীতের সময় ধর্মশালার তাপমাত্রা নেমে যায় হিমাঙ্কের অনেক নিচে। এখনও সেখানে সন্ধ্যা নামলে সেখানে প্রচণ্ড শীত।
এশিয়া কাপের ফাইনালে ওঠায় বাতিল করতে হয়েছে টাইগারদের দুটো প্রস্তুতি ম্যাচ। ফলে কন্ডিশনের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সময়ই পায়নি মাশরাফিরা। তার ওপর যোগ হয়েছে বৃষ্টির আশঙ্কা। সোমবার দিবাগত রাতে বিরতিহীন বৃষ্টি হয়েছে। তবে মঙ্গলবার সকাল থেকে ঝকঝকে রোদে সেই আশঙ্কা উধাও। সকাল ১০টা থেকে প্রায় তিন ঘণ্টা হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন মাঠে নিজেদের ঝালিয়ে নিলেন মাশরাফিরা।
সংবাদ সম্মেলনে বৃষ্টি নিয়ে আশঙ্কার কথা জানালেন মাশরাফি। তিনি বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি খেলা মোমেন্টামের ওপর নির্ভর করে। যেমন আমরা যে এশিয়া কাপের ফাইনাল খেললাম, তাতে আমরা একরকম ফোকাস নিয়ে গেছি, দুই ঘণ্টা বৃষ্টির জন্য খেলা বন্ধ থাকাতে আরেক রকম হয়েছে। আমরা এখন শুধু আল্লাহকে ডাকতে পারি, বৃষ্টি যেন না হয়। যেমন মানসিকতা নিয়ে এসেছি তা নিয়েই যেন খেলতে পারি। বৃষ্টি হলে অবশ্যই অনেক কিছু হিসাব-নিকাশ করতে হয়। মাঠেরও একটা ব্যাপার থাকে। পরিকল্পনারও অনেক ঝামেলা হয়। আমরা চাই না বৃষ্টি হোক।’

তবে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে মাশরাফিদের জন্য খুব একটা সুখবর নেই। ১৭ মার্চ পর্যন্ত ধর্মশালায় বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে এ ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শুধু নেদারল্যান্ডস নয়, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় চার হাজার ফিট উঁচু ধর্মশালার পরিবেশের সঙ্গেও যুদ্ধ করতে হবে টাইগারদের।

সংবাদ সম্মেলনে সেকথা স্মরণ করিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘ভারতের বেশির ভাগ জায়গা আমাদের মতোই। কিন্তু এই জায়গাটা নয়। এখানে কিছু পার্থক্য অনুভব করেছি। যেমন শ্বাস নিতে একটু সমস্যা হয়। আশা করি, আমরা এই সব ব্যাপারের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারব। আশা করি, কালকের ম্যাচে আমাদের সেরাটা দিতে পারব।’ অন্যদিকে বাংলাদেশকে প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়ে রেখেছেন ডাচ অধিনায়ক পিটার বোরেন। বাংলাদেশকে ফেভারিট মানলেও তার দল অঘটন ঘটাতে চায় বলে জানান তিনি।

(বিডিকষ্ট/MSI)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Anti-Spam Quiz: