শিরোনাম:

পাচ্ছে পাকিস্তান এফ ১৬

বিডিকষ্ট ডেস্ক

কিস্তানে প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্রবিষয়ক বিশেষ সহকারী তারিক ফাতেমি জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে এফ ১৬এ জঙ্গি বিমান কেনার চুক্তিটি বাতিল হয়নি, সেটি এখনো অটুট রয়েছে।এফ ১৬এস বিমান কেনার জন্য যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তানকে সাহায্য দেবে না বলে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে, তার প্রেক্ষাপটে ফাতেমি একথা বলেন।এর আগের খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের কাছে আটটি এফ-১৬ বোমারু বিমান বিক্রির ক্ষেত্রে কোনও ভর্তুকি দেবে না আমেরিকা। ফলে এসব যুদ্ধ বিমান কিনতে চাইলে ইসলামাবাদকে ৭০ কোটি ডলার বাড়তি অর্থ খরচ করতে হবে। অর্থাৎ মূল দামের চেয়ে আড়াইগুণ বেশি অর্থ দিতে হবে ইসলামাবাদকে। এমনটাই জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

প্রথমে কথা ছিল এসব বিমান কিনতে পাকিস্তান ২৭ কোটি ডলার দেবে। আর মার্কিন বিদেশি সামরিক আর্থিক তহবিল থেকে বাকি অর্থের যোগান দেয়া হবে। কিন্তু মার্কিন কংগ্রেস এফ-১৬ বিক্রি সংক্রান্ত তহবিল যোগাতে অস্বীকার করায় বিদেশি সামরিক তহবিল থেকে অর্থ দেয়া হচ্ছে না।তবে এফ-১৬ বিক্রি চুক্তির সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন, এসব বিমান পুরোদামে পাকিস্তান কিনবে না। ওয়াশিংটনে নিযুক্ত পাকিস্তান দূতাবাসের মুখপাত্র নাদিম হোতিয়ানা বলেছেন, অস্ত্র বিক্রির প্রক্রিয়া বেশ দীর্ঘ। কাজেই এই পর্যায়ে তিনি কোনো মন্তব্য করবেন না।প্রথমদিন থেকে পাকিস্তানের কাছে এফ-১৬ বিক্রির বিষয়ে কঠোর প্রতিবাদ জানিয়ে এসেছে ভারত। এছাড়া, জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে পাকিস্তান যথাসাধ্য তৎপরতা চালাচ্ছে না বলেও অভিযোগ তুলেছেন কোনো কোনো মার্কিন আইনপ্রণেতা। তবে পাকিস্তানের দাবি, জঙ্গিদের লক্ষ্যবস্তুতে নিখুঁতভাবে আঘাত হানার জন্য এফ-১৬ জঙ্গিবিমানের প্রয়োজন রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Anti-Spam Quiz: