শিরোনাম:

ডিনারের সুফল সূর্যাস্তের পরপরই

বিডিকষ্ট ডেস্ক

অনেকেই রাতের খাবার তাড়াতাড়ি খেয়ে থাকেন। তবে আমাদের বেশিরভাগই আবার ইচ্ছা করেই রাতের খাবারটা দেরিতে খান। এতে করে গ্যাস, হজম সমস্যা, নিদ্রানিহীনতা প্রভৃতি আরও নানা সমস্যা দেখা দেয়। তখন সুস্থ থাকা আমাদের জন্য অনেক কষ্টকর হয়ে পড়ে। কাজেই শারীরিক নানা সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে সূর্যাস্তের পরপরই রাতের খাবার সেরে নেওয়ার পরামর্শ নিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলেছেন, সন্ধে-সন্ধে ডিনার সেরে নিলে সুস্থ থাকা সহজ হয়।সূর্যাস্তের পরপরই ডিনার সেরে নেওয়ার পাঁচ সুবিধার কথা বলেছেন বিশেষজ্ঞরা। এগুলো হলো-

ওজন কমবে
সূর্য ডোবার পরপরই ডিনার করুন। ওই খাবার শুধু শরীরেই এনার্জি সৃষ্টি করবে না, একইসঙ্গে ওজন কমাতেও ভূমিকা রাখবে। কারণ সন্ধেবেলাতেই ডিনার সেরে নিলে হজমের জন্য যথেষ্ঠ সময় পাওয়া যায়। পান্তরে দেরিতে ডিনার করলে ওজন বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কাজেই ওজন কমাতে চাইলে সূর্যাস্তের পরপরই ডিনার করুন।

হজমশক্তি বাড়বে
কম-বেশি সবাই অ্যাসিডিটিসহ হজম সমস্যায় ভুগে থাকেন। যারা সাধারণত বেশি দেরি করে রাতের খাবার খান তাদের এই সমস্যাগুলো বেশি দেখা দেয়। কাজেই গ্যাস কিংবা হজম সমস্যা থেকে রেহাই পেতে সূর্যাস্তরের পরপরই ডিনার সেরে নিন।

ভালো ঘুম হবে
সূর্য ডোবার পরপরই ডিনার সেরে ফেললে রাতে অনেক ভালো ঘুম হয়। একইসঙ্গে খাবার হজম হওয়ার জন্যও যথেষ্ট সময় পায়। অন্যদিকে বেশি দেরিতে ডিনার করলে ঘুম কম হয়। এতে স্বাস্থ্যের উপর এক ধরনের নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

কর্মচাঞ্চল্য ফিরে আসবে
সারাদিনের কান্তি শেষে একটু ঘুমালে শরীর ফের চাঙ্গা হয়ে ওঠে। তখন নতুন উদ্যোমে কাজ করার অনুপ্রেরণা আসে। রাতে তাড়াতাড়ি ডিনার সেরে ঘুমিয়ে পড়লে সকালে উঠে শরীরটা অনেক ঝরঝরে লাগে। এতে আবারও কর্মচাঞ্চল্য ফিরে আসে। তাই আগেই ডিনার সারার চেষ্টা করুন।

পরের দিনের শূভ সূচনা
একটা দিনের শেষ মানেই, পরের আর একটা দিনের শুরু। কাজেই সবাই চায় আগামী দিনটা যেন আজকের থেকে আরও ভাল হয়। আগামী দিনে আরও সতেজ থাকতে আজকের দিনের ঘুমটাও তাই অনেক বেশি জরুরী। সেেেত্র পরের দিনের শুভ সূচনায় ডিনারটা আগেই সেরে ফেলুন। তাহলে সুস্থ থাকা আপনার জন্য সহজ হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Anti-Spam Quiz: